কবিতা, প্রকৃতির কবিতা, রূপক কবিতা

পুষ্প শয্যার ক্লান্ত আর্তনাদে

খেয়া পাড়ের মাঝি মোরে করো সাথী
সমুদ্রের কল তানে পালের শীর্ষের মাস্তুলে।
দুরন্ত জলের নীচে শাপলার ফুটন্ত পাপড়িতে
বালির চরে জেগে থাকে ঘাটের মাল্লারা।

দুর্দান্ত স্রোতের মাঝে উড়ে চলা তীর বর্তী
ক্ষিপ্ত জোনাকির ভিড়ে ঝিনা পোকার নীড়ে।
অজস্র দিগন্তের স্নিগ্ধ কাশফুলের কোমল মুকুল
শুভ্র মেঘের ঝির ঝির হাওয়ার অসীম সুখ।

ভর দুপুরে কিষাণ বাঁশি বাজায় ফুলের ঘ্রাণে
কৃষক পাল উড়ায়ে ছুটে চলেছে অজানাতে।
দূরের বস্তির অন্ধকারে আলোর ঝিলমিল প্রদীপ
অনাহারির বুকের কষ্টের হৃদয় ক্ষরণে সুদীপ্ত।

কালো চুলে হেলে দুলে প্রিয়সীর আঁচল
মাঠের প্রান্তরে সবুজ ঘাসের জীর্ণ কুটিরে।
সাজানো বাগানের পুষ্প শয্যার ক্লান্ত আর্তনাদে।।